কিভাবে পরিপূর্ণ SEO Friendly Blogger Template- করতে হয়?

কিভাবে পরিপূর্ণ SEO Friendly Blogger Template- করতে হয়?

একজন ব্লগার তার ব্লগে যত ধরনের ভালমানের ইউনিক কনটেন্ট শেয়ার করুক না কেন, সে যতক্ষন পর্যন্ত ব্লগের টেমপ্লেকে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন না করবে ততক্ষন পর্যন্ত তার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছতে পারবে না।Blogger Template-কে পরিপূর্ণ SEO Friendly করতে হবে। সার্চ ইঞ্জিন হতে পর্যাপ্ত পরিমানে Traffic পাওয়ার জন্য।
যে যত ধরনের Social Media হতে ব্লগে ভিজিটর পাক না কেন, সার্চ ইঞ্জিন হতে ভিজিটর না পাওয়া অবদি সে তার ব্লগের ভাল র‌্যাংকিং অর্জন করতে পারবে না।ব্লগে ভালমানের কনটেন্ট শেয়ার করার পাশাপাশি যখন কোন ব্লগার ব্লগের সকল SEO গুলি মেনে চলবে তখন তার ব্লগে সার্চ ইঞ্জিন হতে পর্যাপ্ত পরিমানে ভিজিটর পাবে।
Social Media

 অনেক নতুন ব্লগার আছেন যারা শুধুমাত্র একটি কাষ্টম টেমপ্লেট নিয়েই ব্লগিং শুরু করে দেয়।যার ফলে দেখা যায় ব্লগে ভালমানের কনটেন্ট রয়েছে কিন্তু SEO এর অভাবে আশানুরূপ ভিজিটর পাওয়া যাচ্ছে না।যে যত ভালমানের প্রিমিয়াম কাষ্টম টেমপ্লেট ব্যবহার করুক না কেন, কোন ডেভেলপারই একটি ব্লগকে পরিপূর্ণ SEO Friendly করে তৈরি করবে না। হয়ত শুধুমাত্র ব্লগের বেসিক SEO এর কিছু বিষয় সেট করে দেবে, যার বাকী সবটুকুই নিজে নিজেই করতে হয়।



 ১. অপটিমাইজ ব্লগার Post Titles:

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করার জন্য ব্লগের টাইটেল-কে সবার আগে সার্চ ইঞ্জিনের উপযোগী করে নিতে হবে। অন্যথায় সার্চ ইঞ্জিনগুলি বুঝতেই পারবে না যে, আপনি কি পোষ্ট করেছেন বা কি বুঝাতে চাচ্ছেন। ডিফল্ট ব্লগার টেমপ্লেটের পোষ্টগুলির টাইটেল সব সময় আগে থাকে। সেই জন্য সার্চ ইঞ্জিন পোষ্টের ভাষা সহজে বুঝতে পারে না। যার ফল শ্রুতিতে আপনার পেইজটি সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় না এসে পেছনে পড়ে যাবে। কিভাবে করতে হবে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের পূর্বের অপটিমাইজ ব্লগার Post Titles বিষয়ের পোষ্টটি দেখতে পারেন। 

 ২. Meta Description যুক্ত করাঃ

সার্চ ইঞ্জিনে Keyword এর মাধ্যমে কোন কিছু খোঁজার ক্ষেত্রে সার্চ ইঞ্জিনগুলি Meta Description-কে অধিক গুরুত্ব দেয়। যখন কোন ব্লগের পোষ্ট টাইটেল এবং Meta Description অপটিমাইজ করা থাকবে তখন সার্চ ইঞ্জিন সহজে আপনার ব্লগের কনটেন্ট সার্চ Quarry এর মধ্যে পেয়ে যাবে। কিভাবে ব্লগের Meta Description যুক্ত করতে হয় তা নিয়ে নিচে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

 ৩. Custom Robots Header Tags একটিভ করাঃ 

Robots হচ্ছে এক ধরনের কম্পিউটার প্রোগ্রামিং যা বিভিন্ন ওয়েব পেজগুলিকে যাচাই বাছাই করার জন্য ব্যবহৃত হয়। এই Robots আপনার নতুন পোষ্টগুলিকে Crawl করার মাধ্যমে Index করে সার্চ রেজাল্টে নিয়ে আসবে। আর যখন আপনার পোষ্টগুলি সার্চ রেজাল্টে চলে আসবে তখনই আপনার ব্লগে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর পাবেন। এই লিংক থেকে Robots Header Tagsসম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন। 

 ৪. Robots.txt একটিভ করাঃ

প্রত্যেক সার্চ ইঞ্জিনেরই নিজস্ব ওয়েব রোবট রয়েছে। Robots.txt ফাইল এর মাধ্যমে রোবটদের নির্দেশ করা হয় সে ব্লগকে Crawl এবং Index করবে কি না। আপনি ইচ্ছে করলে এই Robot.txt ফাইল ব্যবহার করে রোবটকে Crawl এবং Index করার অনুমতি দিতে পারেন আবার নাও দিতে পারেন। আবার আপনি ইচ্ছে করলে আপনার প্রয়োজনমত কিছু পোষ্ট Crawl এবং Index করার অনুমতি দিতে পারেন আবার কিছু পোষ্ট Crawl এবং Index করার অনুমতি নাও দিতে পারেন। আমরা পূর্বে Robots.txt ফাইল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

 ৫. Multiple Blog Title এবং Posts Titles:

ব্লগার ব্লগের এসইও চেক করলে দেখা যায় যে, ৯০% ব্লগের Home Page এর H1 ট্যাগ নেই। যে কোন ব্লগের জন্য H1 অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ট্যাগ। ব্লগের প্রত্যেক পেজে কমপক্ষে একটি করে H1 ট্যাগ থাকা আবশ্যক। কারণ H1 ট্যাগ সহজে সার্চ ইঞ্জিনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে। মূলত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের নিয়মানুযায়ী প্রত্যেকটি ব্লগের গুরুত্বপূর্ণ Title ট্যাগগুলি H1 হওয়া উচিত। তবেই সহজে টাইটেল ট্যাগ সার্চ ইঞ্জিনকে আকর্ষণ করাতে পারবে। আমরা এ নিয়ে সিরিজ আকারে কয়েকটি পোষ্টের মাধ্যমে Multiple Blog Title এবং Posts Titles নিয়ে আলোচনা করেছি।

 ৬. Schema.Org Markup ব্যবহারঃ

এটি হচ্ছে এক ধরনের (Semantic Vocabulary) কোড, যা সার্চ ইঞ্জিনের আকর্ষন বৃদ্ধি করার জন্য বিভিন্ন ব্লগে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এ গুলি সাধারণত Html এবং Scripts আকারে হয়ে থাকে। এই Schema Markup ট্যাগগুলি ব্যবহার করে আপনার ব্লগের বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে সার্চ ইঞ্জিনদের সহজভাবে পরিষ্কার ধারনা দিতে পারবেন। যার ফলে আপনার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় আসার সম্ভাবনা আরও অনেকগুন বেড়ে যাবে। Schema Markup নিয়ে আমরা দুটি আলাদা পোষ্টে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

সর্বশেষঃ উপরের সবগুলি বিষয় যে কোন ব্লগে যুক্ত করতে পারলে একটি ব্লগার টেমপ্লেটের ৫০% SEO Friendly করার কাজ শেষ হয়ে যাবে। উল্লেখ্য যে, এই বিষয়গুলি ব্লগে Apply করার পর আপনার ব্লগ থেকে আশানুরূপ ফলাফল পাওয়ার জন্য ৭২ ঘন্ট অপেক্ষা করতে হবে। কারণ এই ৭২ ঘন্টা মধ্যে সার্চ ইঞ্জিন আপনার ব্লগটিকে Index করে নেবে।


কিভাবে ব্লগে যুক্ত করতে হয় Meta Description  এবং এর গুরুত্ব কত 

ব্লগার টেমপ্লেটকে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করার জন্য Meta Description অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি Meta Tag. যে কোন ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় নিয়ে আসার জন্য বর্তমান সময়ের সবচাইতে বহুল ব্যবহৃত Google, Yahoo এবং Bing সার্চ ইঞ্জিন ব্লগ পোষ্টের Title ও Meta Description-কে অধীক গুরুত্ব দিয়ে থাকে। সার্চ ইঞ্জিন সাধারণত ব্লগের র‌্যাংক অনুসারে যে কোন ব্লগের গুরুত্বপূর্ণ পেজ টাইটেল এবং Meta Description এর উপর ভিত্তি করে সার্চ রেজাল্টে প্রদর্শন করে। এ ক্ষেত্রে যার ব্লগের র‌্যাংক যত ভাল এবং ব্লগ পোষ্টের টাইটেল এবং Meta Description যত ইউনিক তার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিনের তত উপরে থাকবে।
কিভাবে ব্লগে যুক্ত করতে হয় Meta Description  এবং এর গুরুত্ব কত
অধীকন্তু ব্লগের Meta Description সঠিকভাবে সেট না করা অবদি সার্চ ইঞ্জিন, Google+, Facebook এবং অন্যান সোসিয়াল মিডিয়াগুলিও ব্লগের ও ব্লগ পোষ্টের Description সঠিকভাবে শো করবে না। একটি ব্লগের এবং ব্লগ পোষ্টের ইউনিক, পরিষ্কার এবং ভালমানের Meta Description ব্লগে অধিক সংখ্যক ভিজিটর পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করে।

 Meta Description কি?

অন্যান্য সকল Meta ট্যাগের মত এটিও একটি মেটা ট্যাগ যেটি ব্লগের বাহিরের কোথাও দেখা যায় না, কেবল সার্চ ইঞ্জিন রুবটগুলি দেখতে পায়। এটির মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিন ব্লগ পোষ্টের বিষয়বস্তু সম্বন্ধে একটি সংক্ষিপ্ত ধারনা নিতে পারে। সাধারণত ব্লগার ব্লগ স্পেসসহ ১৫০ অক্ষরের মধ্যে Meta Description লিখার জন্য সাজেস্ট করে। কারণ সার্চ ইঞ্জিন ১৬০ টির অধিক সংখ্যক অক্ষর সার্চ রেজাল্টে প্রদার্শন করে না।

 Meta Description এর গুরুত্ব কতটুকো?

সব ধরনের সার্চ ইঞ্জিন যে কোন ব্লগের কনটেন্টের সাথে সাথে মেটা ট্যাগটিও Crawl ও Index করে নেয়। যখন সার্চ ইঞ্জিনে Keyword ব্যবহার করে কোন কিছু খোঁজা হয়, তখন সার্চ ইঞ্জিন প্রথমে ব্লগের র‌্যাংক অনুযায়ী ব্লগ পোষ্টের Meta Description যাচাই-বাছাই করে দেখে। তখন সার্চ ইঞ্জিন সার্চ Quarry অনুসারে অধিক গুরুত্বপূর্ণ এবং অর্থ বহুল Description এর সমন্বয়ে তৈরি ভালমানের র‌্যাংকের ব্লগগুলির লিংক ধারাবাহিকভাবে সার্চ ইঞ্জিনের পাতায় প্রদর্শন করায়। কাজেই Meta Description টি যেমন ভালমানের Keywords সমৃদ্ধ হতে হয় তেমনি অর্থবহ হওয়া বাঞ্চনীয়।

সার্চ ইঞ্জিন যদি কারও সার্চ Quarry অনুসারে কোন ব্লগের Meta Description খোঁজে পায়, তাহলে সার্চ ইঞ্জিনের Snipest এ পোষ্টের Title দেখানোর পাশাপাশে পোষ্টটির Text হিসেবে Meta Description টুকুও প্রদর্শন করবে। তখন পাঠক ঐ ব্লগ পোষ্টের প্রতি অধিক আকৃষ্ট হবে এবং পোষ্টটি অবশ্যই ভিজিট করতে চাইবে।

 কিভাবে ব্লগে যুক্ত করতে হয়?

  • প্রথমে ব্লগে লগইন করুন।
  • ব্লগার ড্যাশবোর্ড হতে Settings > Search preferences > Meta tags > Description হতে Edit অপশনে ক্লিক করুন।
  • তারপর ‘Yes’ বাটনে ক্লিক করুন। নিচের চিত্রে দেখুন-
আপনার ব্লগের Home Page এর ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে
  • উপরের লাল কালারের মাধ্যমে লিখা খালি বক্সে ১৫০ টি অক্ষরের মধ্যে আপনার ব্লগের ধরনানুযায়ী একটি অর্থ বহুল Meta Description লিখুন। এ Meta Description কেবলমাত্র আপনার ব্লগের Home Page এর ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে।
  • তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

 কিভাবে প্রত্যেকটি পোষ্টে Meta Description যুক্ত করবেন?

  • কোন নতুন পোষ্ট লিখার সময় ব্লগের পোষ্ট Editor এর ডান পাশে নিচের চিত্রেরমত কিছু অপশন দেখতে পাবেন। চিত্রে দেখুন-
Search Description
  • উপরের চিত্রের Search Description অপশনে ক্লিক করলে এই খালি বক্সটি দেখতে পাবেন। এখানে প্রত্যেকটি পোষ্টের বিষয়বস্তুর সাথে মিল রেখে ভালমানের Description লিখবেন। প্রতিটি পোষ্টেই এই অপশনটি দেখতে পাবেন।
  • Description লিখার পর Done এ ক্লিক করুন। That's all.

 কিভাবে পরীক্ষা করবেন?

উপরের সব কিছু ঠিকঠাক করার পর আপনার ব্লগের Meta Description সঠিকভাবে কাজ করছে কি না সেটাই যাচাই করার জন্য অনলাইনে বিভিন্ন টুলস রয়েছে। আপনি ইচ্ছে করলে সেগুলির যে কোন একটির মাধ্যমে যাচাই করে নিতে পারেন। আমি এই লিংক থেকে Meta Tag Analyzer এর মাধ্যমে চেক করে নেয়ার জন্য পরামর্শ দেব। আপনার ব্লগের সব কিছু ঠিক থাকলে Meta Description টি দেখতে পাবেন। আর যদি Meta Description টি দেখতে না পান তাহলে আপনাকে নিচের ছোট ট্রিকসটি ফলো করতে হবে।
  • ব্লগার ড্যাশবোর্ড হতে Template > Edit Html এ ক্লিক করুন।
  • এখন কিবোর্ড হতে Ctrl+F চেপে <head> অংশটি সার্চ করুন।
  • নিচের Meta কোডগুলি <head> ট্যাগের নিচে পেষ্ট করুন।
<b:if cond='data:blog.metaDescription != &quot;&quot;'>
  <meta expr:content='data:blog.metaDescription' name='description'/>
</b:if>
  • সবশেষে Template Save করুন।
সাহায্য জিঞ্জাসঃ আশাকরছি আমি Meta Description এর গুরুত্ব ও ব্যবহার সম্পর্কে আপনাদের কিছুটা হলেও পরিষ্কার ধারনা দিতে পেরেছি। অনেকে ভেবে থাকেন যেহেতু এটি ব্লগের বাহিরে প্রদর্শন হচ্ছে না সেহেতু এটি তেমন গুরুত্ব বহন করে না। এই পোষ্টের মাধ্যমে আমি অন্তত তাদের ধারনার কিছুটা পরিবর্তন আনতে পারব। সর্বোপরি বিষয়টি নিয়ে কারও কোন বুঝতে অসুবিধা হলে কিংবা প্রশ্ন থাকলে আমাদের জানাতে পারেন। আমরা সব সময় প্রশ্ন ভিত্তিক উত্তর পছন্দ করি এবং যথাসময়ে সঠিক প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।


Post a Comment

0 Comments